নাটোর জেলা কেন বিখ্যাত?

রানী ভবানীর স্মৃতিবিজাড়িত জেলা হিসেবে খ্যাত নাটপ্র জেলা দেশজুড়ে প্রসিদ্ধ। জেলাটির ব্র্যান্ডিং নাম রাজসিক নাটোর করা হয়েছে। বাংলাদেশের উত্তর পর পূর্বে অবস্থিত এই জেলাটি নানা দিক দিয়েই আলোচিত নাটোর জেলা কেন বিখ্যাত প্রশ্নটির উত্তর জানতে হলে নিচের লেখাটির সম্পূর্ণ পড়ুন।

নাটোর জেলার দর্শনীয় স্থান

  • চলনবিল
  • পদ্মার তীর
  • আত্রাই নদী
  • শহীদ সাগর
  • হালতির বিল
  • উত্তরা গণভবন
  • লুর্দের রানী ধর্মপল্লী
  • রানী ভবানী রাজবাড়ী
  • দয়ারামপুর রাজবাড়ি
  • বোর্মি মারিয়াবাদ ধর্মপল্লী

►► পটুয়াখালী জেলা কেন বিখ্যাত?
►► চট্টগ্রাম জেলা কেন বিখ্যাত?


নাটোর জেলা

রাজশাহী বিভাগের একটি প্রশাসনিক জেলা হচ্ছে নাটোর। যদিও পূর্বে নাটোর জেলা বৃহত্তর রাজশাহী জেলার একটি মহকুমা হিসেবে অন্তর্গত ছিল। কিন্তু ১৯৮৪ সালে নাটোরকে একটি জেলায় উন্নীত করা হয়। এই জেলা থেকেই রানী ভবানী রাজশাহী অঞ্চল শাসন করতেন। ইতিহাস বিখ্যাত বেশ কয়েকজন জমিদার নাটোর জেলায় জমিদারি করেছিলেন। নাটোর জেলার ইতিহাস অনেক সমৃদ্ধ এবং ঐতিহ্যবাহী। যার কারণে নাটোর জেলার ব্র্যান্ডিং নাম করা হয়েছে রাজসিক নাটোর।

নাটোর জেলা কেন বিখ্যাত?

নাটোরের কাঁচা গোল্লার কথা শুনেনি, এমন মানুষ হয়তো সারা বাংলাদেশের খুঁজেও পাওয়া যাবে না। নাটোর জেলা দেশজুড়ে কাঁচা গোল্লা মিষ্টির জন্য বিখ্যাত। কাঁচা গোল্লা এক ধরনের মিষ্টি, যাতে শিরার পরিমাণ থাকে না। অর্থাৎ এটি এক ধরনের শুষ্ক মিষ্টি, তবে এটি খেতে অনেকটা সন্দেশের মতো। নাটোরের কাঁচা গোল্লার স্বাদ অন্যান্য মিষ্টি চেয়ে আলাদা এবং বিশেষ মসলা এই মিষ্টিতে ব্যবহার করা হয়। নাটোর জেলা কেন বিখ্যাত প্রশ্নটির উত্তর হচ্ছে নাটোর কাঁচা গোল্লার জন্য বিখ্যাত। নাটোরে গিয়ে কাঁচা গোল্লা না খেলে কিন্তু বিশেষ কিছু একটা মিস করে ফেলবেন।

বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ বিল কিন্তু নাটোর জেলাতে অবস্থিত। অনেকে জেনে থাকবেন বাংলাদেশের সর্ব বৃহত্তর বিল হচ্ছে চলনবিল। এই বিল আয়তনে ২৬ বর্গ কিলোমিটার এবং এখানে নানা প্রজাতির মাছ পাওয়া যায়। গ্রীষ্মকালেও এই বিলের পানি সম্পূর্ণ শুকায় না। আর বর্ষাকালে তো থৈ থৈ পানিতে এই বিলটিকে দেখতে অপরূপ সৌন্দর্য লাগে। মজার ব্যাপার হচ্ছে এই বিলের মাঝখান দিয়ে রেলপথ চলে গেছে। যার কারণে বর্ষাকালে যখন কেউ ট্রেনে করে যাত্রা করেন, তারা চলনবিলের অপরূপ সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারেন। চলন বিলের পাওয়া বেশিরভাগ দেশী মাছ ঢাকা সহ অন্যান্য শহরে বিক্রি করতে দেখা যায়। চলন বিলের মাছ অত্যন্ত সুস্বাদু এবং দামেও তুলনামূলক বেশি।

আপনি জানেন কি, বাংলাদেশের সবচেয়ে উষ্ণতম স্থান কোনটি? এটি আর কোথাও নয়, নাটোরের লালপুর নামক উপজেলা। বাংলাদেশের অন্যান্য যেকোনো এলাকার চেয়ে লালপুরে সবচেয়ে বেশি তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। যদিও রাজশাহী অঞ্চল বাংলাদেশের সবচেয়ে উষ্ণ অঞ্চল হিসেবে স্বীকৃতিপ্রাপ্ত।

নাটোর জেলার দর্শনীয় স্থান

বাংলাদেশ সরকারের উত্তরবঙ্গের সদর দপ্তর হিসেবে স্বীকৃত নাটোরের উত্তরা গণভবন। এই গণভবনটি পূর্ব জমিদার বাড়ি হিসেবে ব্যবহার করা হতো। কিন্তু স্বাধীনতার পর বাংলাদেশ সরকার এটিকে সরকারীকরণ করার উদ্যোগ নেয়। যার ফলে বর্তমানে জমিদার বাড়িটি প্রধানমন্ত্রীর বিকল্প বাসভবন হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। উত্তরা গণভবনকে বর্তমানে একটি জাদুঘরের রূপান্তর করা হয়েছে এবং এখানে প্রতিনিয়তই পর্যটকদের দেখতে পাওয়া যায়।

কৃষিক্ষেত্রেও নাটোর জেলাকে আধুনিক জেলা হিসেবে পরিচিত। আদিকাল থেকেই এই জেলার মানুষ কৃষিকাজের উপর সম্পূর্ণ নির্ভরশীল। নাটোরে আখের উৎপাদন প্রাচীনকাল থেকেই হয়ে আসছে। তাই তো বাংলাদেশের সর্বপ্রথম চিনিকল নর্থ বেঙ্গল সুগার মিল নাটোর জেলাতেই অবস্থিত।

এবার সাহিত্যের দিকে আসা যাক। বাংলা ভাষার বিখ্যাত কবি জীবনানন্দ দাশের কথা অনেকেই জানেন। রূপসী বাংলার কবি হিসেবে পরিচিত জীবনানন্দ দাশ একটি বিখ্যাত কবিতা বনলতা সেন লিখেছিলেন। এই কবিতায় উল্লেখিত বনলতা সেনের বাসা তিনি নাটোরে উল্লেখ করেছিলেন। কবিতাটি প্রকাশ পাওয়ার পর বনলতা সেন নামটি সাথে নাটোর জেলার সম্পর্ক জুড়ে যায়। এখনো অনেক সাহিত্য বিশারদরা নাটোরের বনলতা সেনের কথা নাটোরের সাথে উল্লেখ করতে মোটেও ভুল করেন না। নাটোর জেলা কেন বিখ্যাত প্রশ্নটির আরেকটি বিকল্প উত্তর হচ্ছে বনলতা সেনের জন্য। এই বনলতা সেনের চরিত্রটি থেকেই ঢাকা থেকে রাজশাহীগামী একটি ট্রেনের নামও করা হয়েছে বনলতা এক্সপ্রেস।


►► কুমিল্লা জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত?
►► দিনাজপুর কিসের জন্য বিখ্যাত?


নাটোর জেলা নিয়ে প্রশ্ন উত্তর

১. প্রশ্ন: নাটোর জেলা কেন বিখ্যাত?

উত্তর: কাঁচাগোল্লার জন্য

২. প্রশ্ন: রানী ভবানীর স্মৃতি বিজারিত জেলা কোনটি?

উত্তর: নাটোর জেলা

৩. প্রশ্ন: উত্তরা গণভবন কোন জেলায় অবস্থিত?

উত্তর: নাটোরের অবস্থিত

৪. প্রশ্ন: বাংলাদেশের প্রথম চিনিকল কোন জেলায় স্থাপন করা হয়?

উত্তর: নাটোর জেলা স্থাপন করা হয়

৫. প্রশ্ন: বাংলাদেশের সবচেয়ে উষ্ণস্থান কোনটি?

উত্তর: নাটোরের লালপুর উপজেলা

৬. প্রশ্ন: পূর্বে বৃহত্তর রাজশাহীর সদর দপ্তর ছিল কোন স্থানে?

উত্তর: নাটোর জেলায়

৭. প্রশ্ন: বনলতা সেন কবিতাটি কে লিখেছিলেন?

উত্তর: জীবনানন্দ দাশ

৮. প্রশ্ন: জীবনানন্দ দাশের লেখা বনলতা সেন কবিতাটিতে বনলতা সেনের বাড়ি কোথায়?

উত্তর: নাটোর জেলায়

৯. প্রশ্ন: নাটোর জেলায় কোন বিখ্যাত বিলটি অবস্থিত?

উত্তর: চলন বিল

অনুগ্রহ করে আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন। আমাদের ফেসবুক পেইজ এ লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন

Leave a Comment