ব্যাকলিংক কি
ব্যাকলিংক কি কীভাবে Backlinks কাজ করে

ব্যাকলিংক কি? কীভাবে Backlinks কাজ করে?

তোমাদের জন্য নতুন আরো একটি চমৎকার আর্টিকেল প্রস্তুত করেছি আমরা। আজকে আমরা তোমাদের জানাতে চাচ্ছি (backlinks) ব্যাকলিংক কি, ব্যাকলিংক কীভাবে কাজ করে এবং কি কি বিষয় মাথায় রেখে ব্যাকলিংক করা উচিত সেই সমস্ত বিষয়বস্তু নিয়ে।

গুগলের অলমোস্ট ২০০+ রেংকিং ফ্যাক্টর রয়েছে, তারমধ্যে গুগোল ফাস্ট পেজে আসার জন্য অন্যতম রেংকিং ফ্যাক্টর হচ্ছে ব্যাকলিংক।

অনেক ব্লগার আছে যারা আসলে জানে না ব্যাকলিংক কি। এবং কিভাবে ব্যাকলিংক তৈরি করতে হবে।

যার ফলে তারা গুগল সার্চ ইঞ্জিন থেকে তুলনা মূলক কম ট্রাফিক পাচ্ছে।

এজন্য আজকের এই আর্টিকেলে আমি বলবো ওয়েবসাইটের ব্যাকলিংক কি এবং কিভাবে এসইও (SEO) ব্যাকলিংক তৈরি করবেন।

তাহালে চলুন নিচে থেকে জেনে আসি (What are backlink in bangla)

ব্যাকলিংক কি? (What is backlinks)

ব্যাকলিংক হচ্ছে অন্য কোন ওয়েবসাইটের সাথে আপনার ওয়েবসাইটের কানেকশন করা।

অর্থাৎ কোন ভিজিটর অন্য কোন ওয়েবসাইটে যখন আর্টিকেল পড়ছে সেখানে কোন একটা লিংক রয়েছে যেখানে ক্লিক করলে আপনার ওয়েবসাইটে নিয়ে আসে।

মূলত এটাই আপনার ওয়েবসাইটের জন্য একটা ব্যাকলিংক।

সহজ ভাবে বলতে গেলে, ব্যাকলিংক মানে হলো আপনার ওয়েবসাইটের URL link অন্য আর একটি ওয়েবসাইটে থাকা।

এভাবে আপনি সেই ওয়েবসাইট থেকে নিজের ওয়েবসাইটের জন্য একটি এক্সটার্নাল লিংক (external link)পাবেন।

মনে করুন, আমি নিজের ব্লগের জন্য একটি আর্টিকেল লিখলেন।

এবার আমার লেখা আর্টিকেলের একটি অংশে আপনার ব্লগের আর্টকেলের URL address দিয়ে দিলাম।

এতে আপনি নিজের ব্লগ বা ওয়েবসাইটের জন্য একটি Quality backlink পেয়ে যাবেন।

এভাবে অন্য অন্য ওয়েবসাইটে যখন আপনার নিজের ওয়েবসাইটের URL address থাকবে তখন প্রতিটা external link গুলো হবে আপনার ওয়েবসাইটের ব্যাকলিংক।

ব্যাকলিংক কীভাবে কাজ করে? (How do backlinks work?)

মনে রাখবেন একটা ওয়েবসাইটের যত ব্যাকলিংক বেশি থাকবে তার ওয়েবসাইট তত দ্রুত রেংকিং করবে।

আরো পড়ুন:  ইউটিউবে সফলতা পেতে করণীয় (Success on YouTube)

আপনার কাছে দুটি ওয়েবসাইট রয়েছে এবং আপনার প্রথম ওয়েব সাইটটিতে ৫০০ ব্যাকলিংক রয়েছে এবং আপনার দ্বিতীয় ওয়েবসাইটটিতে ২০০ ব্যাকলিংক রয়েছে।

অনায়াসেই আপনার যে ওয়েবসাইটে ৫০০ ব্যাকলিংক রয়েছে সেটা খুব দ্রুত গুগোল ফাস্ট পেজে রেংকিং করবে।

ধরুন আপনার ওয়েব সাইটের ব্যাকলিংক খুবই কম, এখন আপনি ব্যাকলিংক করার জন্য লিঙ্কবিল্ডিং ক্যাম্পেইন করছেন।

গুগোল চেক করে যে আপনি কত সময়ের মধ্যে লিঙ্কবিল্ডিং ক্যাম্পেইন করছেন।

ধরুন আপনি একদিনে ৫০টি লিংক তৈরী করলেন, তবে এটা কখনোই লিঙ্কবিল্ডিং ইফেক্টিভ ক্যাম্পেইন না।

এটা কখনোই ন্যাচারাল লিঙ্কবিল্ডিং ক্যাম্পেইন না। গুগোল অলমোস্ট চেক করে আপনি কত সময়ের মধ্যে ব্যাকলিংক তৈরী করেছেন।

এখানে আপনি যদি ৩০ দিনে ৫০টি ব্যাকলিংক তৈরি করেন সেটি কিন্তু ইফেক্টিভ, এটি আপনার ওয়েবসাইট রেংকিং করতে সহায়তা করবে।

তবে একইভাবে যদি আপনি এই ৫০টি ব্যাকলিংক কয়েক মিনিটে করে ফেলেন তাহলে এটির কোন ইফেক্ট হবে না বরং ক্ষতির আশঙ্কা থাকবে।

রিলেটেড ওয়েবসাইট ব্যাকলিংক (Related website backlinks)

ধরুন আপনার একটা রেস্টুরেন্ট ওয়েবসাইট রয়েছে এখন আপনার ওয়েবসাইটের জন্যে অন্য আরেকটি রেস্টুরেন্ট ওয়েবসাইট থেকে ব্যাকলিংক পেয়েছেন সেটি কিন্তু আপনার ওয়েবসাইটে ব্যাংকিং করার ক্ষেত্রে খুবই কার্যকরী হবে।

অনেক সময় দেখা যায় রিলেটেড ওয়েবসাইট থেকে ব্যাকলিংক নেওয়া সম্ভব হয়না কিন্তু সেই ব্যাকলিংক গুলো অত বেশি স্ট্রং হয়ে থাকে না।

রিলেটেড ওয়েবসাইট অথবা রিলেটেড আর্টিকেল রয়েছে এমন জায়গা থেকে ব্যাকলিংক সংগ্রহ করুন এতে আপনার ওয়েবসাইট ব্যাংকিং করতে আরো বেশি সহায়তা করবে।

আপনার যদি নিউজ পোর্টাল হয়ে থাকে তাহলে আরেকটি নিউজ পোর্টাল থেকে ব্যাকলিংক সংগ্রহ করুন।

আরো পড়ুন:  Cascading Style Sheets (CSS) এর গুরু করার ৭ টি ফর্রমূলা

যদি ব্লগিং ওয়েবসাইট হয়ে থাকে তাহলে আরেকটি ব্লগিং ওয়েবসাইট থেকে ব্যাকলিংক সংগ্রহ করুন।

আপনার ই-কমার্স ওয়েবসাইট হয়ে থাকে সে ক্ষেত্রে আরও একটি ই-কমার্স ওয়েবসাইট থেকে ব্যাকলিংক সংগ্রহ করুন।

সর্বোপরি আপনার ওয়েবসাইটে যে রিলেটেড সেই ডিলিটেড ওয়েবসাইট থেকে ব্যাকলিংক সংগ্রহ করুন এতে করে আপনার ব্যাকলিংক এবং রেংকিং ফ্যাক্টর দুটোই কার্যকর হবে।

কোন একটা ওয়েবসাইট থেকে ব্যাকলিংক নেওয়ার পূর্বে অবশ্যই সেই ওয়েবসাইটের যে ডোমেইন রয়েছে সেটি চেক করুন।

ডোমেইনের অথরিটি কেমন আছে, ডোমেইন ডি.এ এবং ডোমেইন পি.এ কত আছে এই বিষয়গুলো মাথায় রাখুন।

আপনি যে ওয়েবসাইট থেকে ব্যাকলিংক নিচ্ছেন সেটি আদৌ টপ লেভেল ডোমেইন কিনা সেটি মাথায় রাখুন।

ডোমেইন অথরিটি কি? (What is Domain Authority?)

ডোমেইন অথরিটি কি এটা জানার পরে অবশ্যই আপনার ডোমেইন অথরিটি নিয়ে রিসার্চ করার জন্য অনেক বেশি আগ্রহ বেড়ে যাবে।

ডোমেইন অথরিটি এস্কোয়ার হচ্ছে ১-১০০ পর্যন্ত। ডোমেইন অথরিটি চেক করার জন্য এখানে ক্লিক করুন

কোন ডোমেইন অথরিটি যদি ৭০-১০০ হয় তাহলে সেটা আপনার ওয়েবসাইটকে রেংকিং করতে এত বেশি সহায়তা করবে যা আপনি ভেবেও রাখেননি।

গুগোল, ফেসবুক, ইউটিউব, টুইটার, উইকিপিডিয়া এবং ইনস্টাগ্রাম এ ধরনের ডোমেইনগুলো অথরিটি ৮৫-১০০ হয়ে থাকে।

আপনি যদি এই ধরনের কোন একটা ডোমেইন থেকে ব্যাকলিংক সংগ্রহ করতে পারেন সে ক্ষেত্রে আপনার ওয়েবসাইট রেংকিং করতে খুব বেশি সময় লাগবে না।

যখন আপনি ব্যাকলিংক তৈরী করবেন তখন অবশ্যই আপনার চেষ্টা থাকতে হবে টপ লেভেল ডোমেইন এবং ভালো অথরিটি রয়েছে এমন ডোমেইন দ্বারা যেন আপনি এটা ব্যাকলিংক সংগ্রহ করতে পারেন।

অনেকে জানতে চান ডোমেইন অথোরিটি চেক করবো কিভাবে। তাদের জন্য একটি লিংক দিচ্ছি। এই লিংক গিয়ে Domain Authority জেনে আসতে পারবেন। লিংক – https://ahrefs.com/website-authority-checker

আরো পড়ুন:  এই গরমে প্রাকৃতিকভাবে ঘর ঠান্ডা রাখুন

সর্বশেষ কিছু কথা

যখনই আপনি আপনার ওয়েবসাইটের জন্য একটি ব্যাকলিংক তৈরী করতে যাবেন তখন তিনটি বিষয় অবশ্যই মাথায় রাখবেন।

১- (Increased Backlink) অসংখ্য ব্যাকলিংক তৈরী করার চেষ্টা করবেন। তবে এটি খুব অল্প সময়ের মধ্যে না, মিনিমাম লম্বা সময় ধরে এটি করবেন। খুব অল্প সময়ের মধ্যে করলে আপনার ব্যাকলিংক গুলো কার্যকারী হবেনা। যা পূর্বেই আমরা আলোচনা করেছি।

২- (Related Website) অবশ্যই রিলেটেড ওয়েবসাইট এবং হাই কোয়ালিটির ডোমেইন রয়েছে সেগুলো থেকে ব্যাকলিংক তৈরী করুন। ডোমেইন কোয়ালিটি এবং রিলেটেড ওয়েবসাইট ব্যাকলিংক তৈরীর জন্য খুব বেশি সহায়ক তাই এই বিষয়টি মাথায় রেখে অবশ্যই ব্যাকলিংক তৈরী করতে হবে।

৩- (Domain Authority) মনে রাখবেন, কোন ডোমেইন অথরিটি যদি ১-৮/১০ হয়ে থাকে সেই ডোমেইনগুলো থেকেও ব্যাকলিংক না নেয়াই বুদ্ধিমানের কাজ। তবে এ ডোমেইনগুলো যদি আপনার সোসাইটির হয়ে থাকে অথবা আপনার নিজস্ব হয়ে থাকে সে ক্ষেত্রে নিতে পারেন।

তাহালে বন্ধুরা আজকে আমরা শিখলাম ব্যাকলিংক কি (what is backlink in bangla tutorial) এবং কিভাবে ওয়েবসাইটের ব্যাকলিংক তৈরি করবো।

ওয়েবসাইটে গুগলের প্রথম ৫ নম্বার পেজে আনার জন্য ব্লগে ব্যাকলিংক সংখ্যা বেশি করতে হবে। মনে রাখবেন, যত higt quality backlink আপনার ওয়েবসাইটে ততো গুগল আপনার ওয়েবসাইটকে বিশ্বাস করবে।

Backlinks সম্পর্কে আর কোনো বিষয়ে জানতে চাইলে নিচে কমেন্টে জানান এবং লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করার অনুরোধ রইল।

অনুগ্রহ করে আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন।  আমাদের ফেসবুক পেইজ এ লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন

Check Also

কিভাবে ইউটিউব ভিডিওর ভিউ বাড়াবো

কিভাবে ইউটিউব ভিডিওর ভিউ বাড়াবো ?

কিভাবে ইউটিউব ভিডিওর ভিউ বাড়াবো এমন প্রশ্ন প্রত্যেকটা নতুন ইউটিউবারদের মধ্যে বিরাজমান রয়েছে। YouTubing শুরু …

Leave a Reply

Your email address will not be published.